কেরালা রাজ্যে বন্যায় মৃত ৩২৪
প্রকাশ : ১৮ আগস্ট ২০১৮, ০৯:২৫
কেরালা রাজ্যে বন্যায় মৃত ৩২৪
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় রাজ্য কেরালায় গত একশো বছরের ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যায় এ পর্যন্ত ৩২৪ জন মানুষ মারা গেছে।


মূলত অতিবৃষ্টির কারণেই সেখানে এই বন্যা দেখা দিয়েছে। কেরালা ছাড়াও ভারতের আরো কিছু রাজ্যে মৌসুমী বৃষ্টির কারণে বন্যা হয়েছে। সব মিলিয়ে ভারত জুড়ে বন্যায় নিহতের সংখ্যা এক হাজারের বেশি।


তবে বন্যার চেহারা সবচেয়ে ভয়ংকর রূপ নিয়েছে কেরালায়। কেবল গত ৩৬ ঘন্টাতেই সেখানে মৃত্যু হয়েছে অন্তত ১৬০ জনের। দুই লাখেরও বেশি মানুষ গৃহহীন। ১৫০০টি অস্থায়ী শিবিরে ঠাঁই হয়েছে তাদের। সেখানে আরো খারাপ হচ্ছে বন্যা পরিস্থিতি। কেরালার ২৪০৬টি গ্রাম ডুবে রয়েছে পানির তলায়, বানভাসি ১৪টি জেলা।


কেরালার বন্যায় ক্ষতি হয়েছে ২৬,৪০০ হেক্টরেরও বেশি কৃষিজমির। ৮০টি বাঁধ খুলে দেয়া হয়েছে। হাসপাতালগুলোতে অক্সিজেনের অভাব। পেট্রোল পাম্পে মিলছে না তেল।



সেখানে বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী, সেনা, নৌবাহিনী, উপকূলরক্ষী বাহিনী ও বিমান বাহিনীকে উদ্ধার কাজে নামানো হয়েছে।


উত্তরপ্রদেশে এখনোও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ১৭১ জনের। মৃতের সংখ্যায় যথেষ্ট খারাপ পশ্চিমবঙ্গের পরিস্থিতিও। বৃষ্টি ও বজ্রাঘাতে সেখানে মৃত্যু হয়েছে ১৭০ জনের। মহারাষ্ট্রে মৃত ১৩৯ জন, গুজরাতে প্রাণ হারিয়েছেন ৫২, আসামে ৪৫ জন এবং নাগাল্যান্ডে ১০ জন। শুধু তাই নয়, বৃষ্টি সংক্রান্ত কারণে কেরালায় এখনো পর্যন্ত নিখোঁজ ২২ জন এবং পশ্চিমবঙ্গে রাজ্যে পাঁচজন।


ভারতের রাজ্যগুলোর মধ্যে কেরালাতেই সবচেয়ে বৃষ্টিপাত হয় প্রতিবছর। কিন্তু গত প্রায় ১০ দিন ধরে একটানা বৃষ্টি হয়ে চলেছে সেখানে। শনিবার পর্যন্ত ফের নতুন করে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।


রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন বলেছেন, গত এক শতাব্দীর মধ্যে এরকম বন্যা সেখানে হয়নি। শুক্রবার রাজধানী থিরুভনন্তপুরমে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছেন, রাজ্যের ১৪টি জেলার মধ্যে ১৩টি জেলাই বন্যার কবলে পড়েছে।



রাজ্য জুড়েই চূড়ান্ত সতকর্তা জারি করা হলেও সবচেয়ে উদ্বেগজনক পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে আলাপুঝা, থ্রিসুর আর এর্ণাকুলাম জেলাগুলোতে।


এই পরিস্থিতিতে শুক্রবার রাতে কেরালায় পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী টুইটে লিখেছেন, কেরালা, কর্নাটকের কোদাগু বৃষ্টিতে বিধ্বস্ত। আমাদের কর্মী ও নেতাদের এখন কংগ্রেসের সেবামূলক মূল্যবোধ ও ভালবাসা দেখানোর সময়। নিজের সবটুকু দিয়ে পাশে দাঁড়ান। সূত্র: বিবিসি ও এই সময়


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com