পক্ষপাতদুষ্ট রাজনীতি নতুন প্রজন্মকে কি দেবে?
প্রকাশ : ২৩ অক্টোবর ২০১৭, ১৫:৫৫
পক্ষপাতদুষ্ট রাজনীতি নতুন প্রজন্মকে কি দেবে?
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ছাত্রলীগের বিগত সম্মেলনের মাসখানেক পরের কথা, স্বপ্ন ভাঙার বেদনাহত হয়ে স্বভাবতই নিজেকে একটু আড়ালে রাখতাম। ছাত্রলীগ পরিবারের সাথে মধুর ক্যান্টিনের সেই চিরচেনা আড্ডার বিগত সাত বছরের পুরনো অভ্যাস কি আর চাইলেই বদলে ফেলা যায়! খুব মিস করছিলাম প্রিয় ক্যান্টিন! হঠাৎ একদিন ভরদুপুরে বাসা থেকে বেরিয়ে রিক্সা নিয়ে সোজা আইবিএ ভবনের গেটে থামলাম।


রিক্সা থেকে নামতেই দেখি বিরাট প্রটোকল নিয়ে এক আনকোরা সহাস্যমুখ এগিয়ে এলো, "কি রাব্বানী! তোমারে দেখি না আজকাল, কই থাকো, রাজনীতি ছেড়ে দিলা নাকি!"
আমি কেবল মৃদু হেসে "না ভাই, আছি তো" বলে বিদায় নিলাম। ঐ মৃদু হাসির তর্জমা সেই ভাই সেদিন বোঝেনি।


মনে মনেই হাসলাম আর বিড়বিড় করলাম, ভাই তোমারে তো আমি বিগত ৬/৭ বছরে কোনোদিন মধুতে দেখি নাই, তুমি আমারে দেখবা কিভাবে? কোথা থেকে আসছো, কই পড়ো, কি করো, কি তোমার পলিটিকাল ব্যাকগ্রাউন্ড কিছুই জানা নেই! কেবল এটুকু জানি, তুমি কোনো নব্য শীর্ষ নেতার আত্মীয়গোছের ঘনিষ্ঠ কেউ, তাই এত প্রটোকল।


যাই হোক, কথাগুলো বলতে সেই ভাই বিব্রতবোধ না করলেও তার পিছনে দাঁড়িয়ে থাকা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের পরিচিত মুখের অনুজরা যে বিব্রত হচ্ছিলো, তা ওদের চাহনি আর এক্সপ্রেশন দেখে বেশ বুঝলাম।


ওদের কি কসুর, পড়েছো মুঘলের হাতে, খানা খেতে হয় একসাথে!


এভাবেই চলে আসছে। নতুন কমিটি হলে বদলে যায় সব হিসেবনিকেশ। শীতের পাতাঝরা বৃক্ষের মতো ঝরে যায়, বঞ্চিত হয় অনেক পরীক্ষিত নেতা-কর্মী। অতিথি পাখির মত উড়ে এসে জুড়ে বসে রাতারাতি সর্বেসর্বা হয়ে যায় নতুন নেতার কাছের কেউ কেউ।


আপনি কে, কি ব্যাকগ্রাউন্ড, কি যোগ্যতা, দলের জন্য কি করেছেন, কত শ্রম দিয়েছেন, কত ঝুঁকি নিয়েছেন, কি অবদান রেখেছেন সব হয়ে যায় গৌণ! পদ, ক্ষমতা, প্রটোকলের ইক্যুয়েশনে মুখ্য নিয়ামক কেবল একটাই, আপনি শীর্ষ কর্তার কাছের কেউ কিনা, 'মাই ম্যান' কিনা!


২০১৭ সাল যায় যায়, ২০১৮ সাল আসছে। বিশ্ব মঙ্গলে বসতি করার কথা ভাবছে, আর আমরা আজো সেই ব্যক্তিস্বার্থের পুরনো অচলায়তনে বন্দী!


এই পক্ষপাতদুষ্ট দৃষ্টিকটু রাজনীতি নতুন প্রজন্মকে কি দেবে? কিভাবে আকর্ষণ করবে? জাতি কি প্রত্যাশা করবে? জানা নেই, সত্যি জানা নেই!


চাই পরিবর্তন, চাই মেধা-শ্রম-ত্যাগ-যোগ্যতার সঠিক মূল্যায়ন।


জানি,
একদিন ভোর হবে আমাদের চেতনার ঘরে;
একদিন ভোর হবে আমাদের বাঁধভাঙা স্বরে!
আস্থা কেবল দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনায়।


গোলাম রাব্বানীর ফেসবুক থেকে


বিবার্তা/মৌসুমী


সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com