পারিবারিক সঠিক শিক্ষাটা খুবই জরুরি
প্রকাশ : ১২ অক্টোবর ২০১৯, ১৭:৪৩
পারিবারিক সঠিক শিক্ষাটা খুবই জরুরি
প্রিন্ট অ-অ+

ঘরে বাইরে, অফিস আদালতে, বন্ধুমহলে প্রতিটি ক্ষণ মানুষ রাজনীতিটাই করে। অফিসে দলাদলি, বন্ধু মহলে দলাদলি এমন কি খুব সুক্ষভাবে দেখলে ঘরের মধ্যেও দলাদলি চলে। বাবা এক সন্তানের পক্ষ নেয় তো মা আরেক সন্তানের পক্ষ নেয়। রাজনীতিকে কোনো মানুষ অস্বীকার করতে পারবে না। রাজনীতি প্রতিটি মানুষের সত্তায় মিশে আছে। আমার মনে হয় আ্যারিস্টটল এটাই বুঝাতে চেয়েছেন।


তাই যারা বলে রাজনীতি নিষিদ্ধ হোক, আমরা রাজনীতি করিনা, রাজনীতি খারাপ তাদের সংজ্ঞাটা আ্যারিস্টটল বেঁচে থাকলে ভাল দিতে পারতেন।


খুবই জঘন্য একটি হত্যাকাণ্ড ঘটেছে, আমরা কেউই এর দায় এড়াতে পারবো না, অবশ্যই জামাআত শিবির পরিবার থেকে আসা যাদের ছাত্রলীগে পদ দেয়া হয়েছে, আমি বলব অবশ্যই এই দায় ছাত্রলীগের।


কিন্তু এও সত্য আমাদের প্রধানমন্ত্রী যেভাবে সাথে সাথে পদক্ষেপ নিয়েছেন, তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়।


অতীতে কোনো হত্যাকাণ্ডে এত দ্রুত পদক্ষেপ আমরা দেখেছি বলে মনে হয় না। প্রধাণমন্ত্রী নিজেও তার পরিবার হত্যার বিচার এত দ্রুত পাননি। ৩৫ বছর অপেক্ষা করতে হয়েছে।


অনেকেই বলেন এই দেশের রাজনীতি ভাল না, তাই রাজনীতি করিনা, একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে আপনার দায়িত্ব রাজনীতি করা এবং তার পরিবর্তন ঘটানো। নষ্ট রাজনীতি ভাল করে দেখান। যারা একদিনে বিপ্লব ঘটাতে চান, তাদের দ্বারা কিছুই সম্ভব নয়। যারা কথায় কথায় ইউরোপ, আমেরিকা, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুরের উদাহরণ দেন তাদের উদ্দ্যেশ্য বলতে চাই এসব দেশ একদিনে পরিবর্তন হয় নাই। এসব দেশের পরিবর্তন আনয়নকারীরা বড় মাপের সাধক। দীর্ঘ ত্যাগ তিতিক্ষায় দীর্ঘ সময় নিয়ে তারা দেশের পরিবর্তন ঘটিয়েছেন।আর সেসব দেশের জনগণ অনেক সচেতন। ইউরোপ আমেরিকার একটা মানুষও আমার আপনার মতো রাস্তার ধারে ময়লা ফেলবেন না। আর আমরা নিজেরা পরিবর্তন না হয়ে সব দায় মেয়রের উপর ছেড়ে দেই।


অনেকেই বলছেন শেখ হাসিনা যে উদ্যেগ গুলো এখন নিচ্ছেন সেগুলো আগে কেন নিলেন না। ভাল কাজকে আমরা সাধুবাদ দিতে জানি না। নাই নাই স্বভাব আমাদের যায় না। সকল কাজে ভুল ধরা এই জাতির স্বভাবে পরিণত হয়েছে। কোনো কিছুতেই আমরা সম্তুষ্ট হতে পারি না।


অপরাধগুলো কেন ঘটছে, সেগুলো খতিয়ে দেখতে হবে। দেশকে পরিবর্তন করতে হলে নিজেকে আগে পরিবর্তন করতে হবে।শিক্ষা ব্যবস্থার পরিবর্তন ঘটাতে হবে। সেটাও একদিনে সম্ভব নয়।


সন্তানের বিকাশে সবচেয়ে বড় ভূমিকা পালন করে বাবা মা। শৈশবে মানুষ যা শিখে সেটাই তার অন্তরে গেথে যায়। বিশ্ববিদ্যালয় জীবনে এসে ঢাকা শহরে রঙিন চাকচিক্য দেখে তারাই স্বভাব নষ্ট করে, যাদের পারিবারিক শিক্ষা সঠিক নয়। যাদের পারিবারিক শিক্ষা ভাল তারা কখনো কোনো পরিস্থিতিতে অপরাধপ্রবণ হতে পারে না। এই ঢাকা শহরে অনেক ছেলেমেয়েকে টাকার জন্য নষ্ট হতে দেখেছি, আবার অনেক ছেলেমেয়েকেই ধৈয্য ধারণ করে।


টিউশনি করে চলে বিসিএস ক্যাডার হতে দেখেছি।পারিবারিক সঠিক শিক্ষাটা খুবই জরুরি, সাথে নৈতিকতা বোধ আর আল্লাহভীতি।


তানজিন শারমিন মিশরি’র ফেসবুক থেকে পাওয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com