‘বিনিয়োগ আরেকটু বাড়লে অর্থনীতি আরো শক্তিশালী হবে’
প্রকাশ : ০৭ অক্টোবর ২০১৮, ১৪:৪২
‘বিনিয়োগ আরেকটু বাড়লে অর্থনীতি আরো শক্তিশালী হবে’
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত আশা প্রকাশ করেছেন, আগামী দিনে বেসরকারি বিনিয়োগ আরো বাড়বে। আমাদের বিনিয়োগ আসলেই খুবই কম। তবে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে সরকারি বিনিয়োগ বেড়েছে।


তিনি বলেন, টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও সমৃদ্ধশালী দেশ হিসেবে গড়ে ওঠার ক্ষেত্রে আগামী পাঁচ বছর বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই শেখ হাসিনার সরকারকে আরো পাঁচটি বছর ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত করতে পারলে ১০-১৫ বছরে একটি সমৃদ্ধশালী দেশ গড়ে ওঠার ক্ষেত্রে কোনো অসুবিধা হবে না।


রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে রবিবার বাংলাদেশ সিকিউরিটি একচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) আয়োজিত ‘বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহ-২০১৮’ উপলক্ষে আয়োজিত এক কনফারেন্সে এ কথা বলেন তিনি।


অর্থমন্ত্রী বলেন, এখনো বাংলাদেশের বিনিয়োগের হার বেশ কম। তাই বেসরকারি বিনিয়োগকে উৎসাহিত করতে, অবকাঠামোসহ নানা খাতে গত ১০ বছরে বিনিয়োগ বাড়ানো হয়েছে। সরকার নিরবচ্ছিন্নভাবে ক্ষমতায় থাকায় দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।


তিনি বলেন, আমাদের বিনিয়োগ আসলে খুবই কম। আমরা একটু একটু করে বিনিয়োগটাকে ঠেলেঠুলে এখন প্রায় ৩০ শতাংশের ওপরে নিয়েছি। আশা করছি যে এটা আরেকটু বাড়বে এবং আরেকটু বাড়লে পরে আমাদের অর্থনীতিতে যে ঊর্ধ্বগতি এসেছে, সেটা আরো বেগবান হবে। আরো শক্তিশালী হবে।


তিনি আরো বলেন, সরকারের একটা দায়িত্ব রয়েছে এবং আমরা গত ১০ বছর সরকারি বিনিয়োগ অনেকাংশে বাড়িয়েছি। কারণ সরকারি বিনিয়োগে যেসব সুযোগ-সুবিধা সৃষ্টি করা হয়, তার ওপর নির্ভর করে অন্যান্য বিনিয়োগ হয়। রাস্তা-ঘাট সরকার যদি না বানিয়ে দেয়, তাহলে লোকজন পণ্য উৎপাদন করবে কেন? কারণ তার তো মার্কেট তখন থাকবে না। এখান থেকে অন্য খানে পণ্য যেতে হবে। সুতরাং রাস্তা-ঘাটের উন্নয়ন প্রয়োজন। আরো বিভিন্ন ধরনের সেবা আছে, যেগুলো সরকার ব্যবস্থা করে।


মুহিত বলেন, পুঁজিবাজার এখনো গড়ে উঠেনি, তবে গড়ে ওঠার মতো ভিত্তি তৈরি করা হয়েছে। কাজেই অচিরেই এ বাজার গড়ে ওঠবে। দেশের পুঁজিবাজারে দুই বার বড় ধস হয়েছে। যার ফসল হিসাবে বাজারে নানা সংস্কার হয়েছে। এক্ষেত্রে বিএসইসি এর বর্তমান কমিশন ৮ বছর ধরে কাজ করে যাচ্ছে এবং তারা দক্ষতার নিদর্শন দেখিয়েছেন।


এছাড়া সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন ভালো সংস্কার করায় দেশের পুঁজিবাজার শিগগিরই ভালো অবস্থানে যাবে বলে আশাবাদ জানান অর্থমন্ত্রী।


অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন বিএসইসির চেয়ারম্যান ড. এম খায়রুল হোসেন ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম।


বিবার্তা/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com