ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন চলচ্চিত্র পরিচালক মতিন রহমানের
প্রকাশ : ২৬ মে ২০১৯, ১১:৫০
ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন চলচ্চিত্র পরিচালক মতিন রহমানের
অভি মঈনুদ্দীন
প্রিন্ট অ-অ+

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের জীবন্ত কিংবদন্তী চলচ্চিত্র পরিচালক মতিন রহমান চলচ্চিত্রের উপর গবেষণার জন্য পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেছেন। তার এই ডিগ্রি অর্জনের মধ্যদিয়ে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র পরিচালকদের মধ্যে থেকে তিনি এক নতুন যুগান্তকারী দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন।


বাংলাদেশের চলচ্চিত্র নির্মাতাদের মধ্যে তিনিই প্রথম এই ডিগ্রি অর্জন করেছেন। তার এই ডিগ্রি অর্জনের মধ্যদিয়ে চলচ্চিত্রবাসীদের মধ্যে এক অন্যরকম উচ্ছ্বাস বয়ে যাচ্ছে। বলা যায় প্রায় সবাই মতিন রহমানকে তার এই সাফল্যে অভিনন্দিত করছেন।


বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে লোকজ উপাদানের প্রয়োগ কৌশল ও নন্দন ভাবনা বিষয়ের উপর মতিন রহমান গবেষণা করে এই ডিগ্রি অর্জন করেছেন। ঋত্বিক ঘটকের তিতাস একটি নদীর নাম, এ জে কারদারের জাগো হুয়া সাভেরা, জহির রায়হানের বেহুলা, সালাহউদ্দিনের রূপবান, আমজাদ হোসেনের গোলাপী এখন ট্রেনে এবং হুমায়ূন আহমেদর আগুনের পরশমণি এই ছয়টি সিনেমার নির্মাণে লোকজ উপাদানের প্রয়োগ কী ভাবে হলো এবং তার নন্দন ভাবনা ছিল কী না তা নিয়েই গবেষণা করেছেন তিনি।


সিনেমাগুলোর গানে, সংলাপে, পোশাকে লোকজ উপাদানের প্রয়োগ বিশ্লেষণ করে এর নতুন করে বিচার করে মতিন রহমান প্রমাণ করেছেন, এসব সিনেমাতে নন্দন ভাবনা ছিল। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত বিভাগের ড. আমিনুল ইসলাম দুর্জয়ের অধীনে মতিন রহমান এই গবেষণা করেন। তার পরীক্ষক হিসেবে ছিলেন ড. কাবেরী গায়েন ও ড. বিশ্বজিৎ ঘোষ। নিজের এমন সাফল্যে বেশ উচ্ছ্বসিত মতিন রহমান।


মতিন রহমান বলেন, সিনেমা নির্মাণের শুরু সময় থেকেই বই পড়ার প্রতি আমার ভীষণ আগ্রহ ছিল। আমার সবসময়ই মনে হতো যে সিনেমা নির্মাণ করতে হলে নিজেকে বেশি বেশি জানতে হবে। এর বিকল্প নেই। কারণ আমি মনে করি সিনেমা হলো নানান শিক্ষার সংমিশ্রণ। যার ফলে সিনেমা নির্মাণ করতে গিয়ে আমার সবসময়ই আগ্রহ ছিলো এর শেষ কোথায়, এটা দেখার। সেই আগ্রহ থেকেই আমার অর্জিত বিষয়ের উপর গবেষণার আগ্রহ জন্মায়।


তিনি বলেন, তবে এই গবেষণাটা করা একান্তই আমার নিজের জন্য, নিজের আনন্দের জন্য। কোনো রকম প্রচারে যাওয়ার ইচ্ছে আমার কখনোই ছিল না। তবে এটা সত্যি চলচ্চিত্র নির্মাণের সঙ্গে সম্পৃক্ত থেকে গবেষণায় নিজেকে সম্পৃক্ত করার মধ্য দিয়ে নিজেকেও নতুন করে আবিষ্কার করেছি। জানি এটি এভারেস্ট বিজয়ের মতো কোনো ঘটনা নয়, তবে আমার এই অর্জনে আমি তৃপ্ত।


মতিন রহমান দীর্ঘ ১৫ বছর যাবত রাজধানীর স্টামফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে শিক্ষকতা করছেন। বর্তমানে তিনি সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে শিক্ষকতা করছেন।


তবে তিনি জানান, বর্তমানে তিনি ভাষা আন্দোলনের উপর বিষদ পড়াশুনা করছেন। যদি তিনি সিনেমা নির্মাণের উপর কোনো উপাদান পেয়ে যান, তবে এই বিষয়ের উপর সিনেমা নির্মাণের আগ্রহ আছে তার।


বিবার্তা/অভি/তাওহীদ/জাকিয়া

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com