ছাত্রলীগের কমিটি বাতিল ও হামলাকারীদের বিচার দাবি
প্রকাশ : ১৫ মে ২০১৯, ১৬:৪৬
ছাত্রলীগের কমিটি বাতিল ও হামলাকারীদের বিচার দাবি
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

সদ্য ঘোষিত বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি বাতিল ও মধুর ক্যান্টিনে সংগঠনের নারী নেত্রীদের উপর হামলাকারীদের বিচারের দাবি জানিয়েছে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত ও অবমূল্যায়িতরা।


বুধবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে আয়োজিত মানববন্ধন থেকে তারা এ দাবি জানান। এতে উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগের সাবেক প্রচার সম্পাদক সাইফ বাবু, কর্মসূচি ও পরিকল্পনা সম্পাদক রাকিব হোসেন, কবি জসীম উদ্দিন হল শাখার সাধারণ সম্পাদক শাহেদ খান, রোকেয়া হল শাখার সভাপতি বিএম লিপি আক্তার, স্কুলছাত্র বিষয়ক সম্পাদক জয়নাল আবেদীন, সাবেক সদস্য তানভীর হাসান সৈকত, শামসুন নাহার হল শাখার সভাপতি নিপু ইসলাম তন্বী, সাধারণ সম্পাদক জিয়াসমিন শান্তাসহ প্রমুখ।


মানববন্ধনে রোকেয়া হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি এবং ডাকসুর কমনরুম ও ক্যাফেটেরিয়া সম্পাদক বিএম লিপি আক্তার বলেন, আমাদের ছোট পদ দেয়া হয়েছে বা আমরা পদ না পাওয়ার জন্য আন্দোলন করছি না, বরং কমিটিতে মাদক মামলার আসামি, বিবাহিত, অছাত্র, ছাত্রদল, রাজাকারের সন্তানদের পদ দেয়া হয়েছে, তার জন্য আমরা আন্দোলন করছি।


লিপি বলেন, যাদের কমিটিতে রাখা হয়েছে তাদের ২২ জনের আগে কোনো পদ ছিল না। অথচ তাদের পদ দেয়া হয়েছে।আমাদের উদ্দেশ্য যারা কমিটিতে এসেছে, যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ এসেছে, তাদেরকে বাদ দিয়ে দক্ষ ও যোগ্যদেরকে নিয়ে কমিটি করা।


এসময় নতুন কোন কর্মসূচি ঘোষণা করবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমাদের ৪৮ ঘণ্টার সময় দেয়া ছিল। আগামীকাল এটি শেষ হবে। তারপরই এবিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।


লিপি আক্তার বলেন, যারা ছাত্রলীগকে কলুষিত করছে তাদের বিরুদ্ধে আমরা সোচ্চার থাকব। আমার দিকে গ্লাস ছুড়ে মারলে মাথা সরিয়ে নিই, সেটি গিয়ে লাগে রোকেয়া হলের সাধারণ সম্পাদক শ্রাবণী দিশার চোখের পাশে। তার অবস্থা গুরুতর। দায়িত্বশীল জায়গা থেকে কেউ ঘটনাস্থলে না থেকে যদি বলে, চেয়ারের কোনা লেগে আঘাত পেয়েছে। সেটা তো মেনে নেয়া যায় না।


এসময় আওয়ামী লীগ নেতারা এটিকে সামান্য ঘটনা বলার বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে ছাত্রলীগের শামসুন্নাহার হল শাখার সভাপতি ও নতুন কমিটিতে উপ-সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদ পাওয়া নিপু তন্বী বলেন, আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের কাছে সম্মান প্রদর্শন করে জানতে চাই, মধুর ক্যান্টিনের ঘটনাটি কোন পর্যায়ে গেলে তাদের কাছে মনে হত এটি বিশাল আকারের ঘটনা?আমাদেরকে আর কতটুকু লাঞ্ছিত করলে আপনাদের কাছে মনে হত ছাত্রলীগের নারীদের উপর নির্যাতন হয়েছে। আমরা মারা যাওয়ার পরে কি ঘটনার সত্যতা প্রকাশ পেত?


তিনি আরো বলেন, কোটা আন্দোলনের সময় ছাত্রলীগের নেত্রী এশার উপর হামলা হয়েছে। এরপর তাকে অনেকেই প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন দেখে রাখবেন, তাকে মূল্যায়ন করা হবে। কোথায় সেই মূল্যায়ন?


মানববন্ধনে তারা ‘জামায়াত-শিবির ছাত্রদল অনুপ্রবেশকারীদের কমিটি মানি না’, ‘আমাদের বোনদের উপর হামলা কেন বিচার চাই বিচার চাই’, ‘অবৈধ কমিটি মানি না’, ‘অছাত্রদের আদুভাইদের কমিটি মানি না’, ‘ক্যাম্পাস থেকে বহিষ্কৃতদের কমিটি মানি না’, ‘বঙ্গবন্ধুর ছাত্রলীগে অছাত্রদের স্থান নেই’সহ বিভিন্ন ধরনের প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করেন।


বিবার্তা/রাসেল/আকবর

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com