বাড়তি টিউশন ফি আদায়কারীদের সতর্ক করলেন শিক্ষামন্ত্রী
প্রকাশ : ১৭ জানুয়ারি ২০১৮, ১৯:৩৭
বাড়তি টিউশন ফি আদায়কারীদের সতর্ক করলেন শিক্ষামন্ত্রী
বিবার্তা ডেস্ক
প্রিন্ট অ-অ+

ব্যবসা ও মুনাফার চিন্তা ত্যাগ করে লাগামহীন ভর্তি ও টিউশন ফি আদায়কারী বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে সংযত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।


বুধবার গ্রিন ইউনিভার্সিটির তৃতীয় সমাবর্তন অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের আচার্যের প্রতিনিধি হিসেবে বক্তৃতাকালে তিনি এসব কথা বলেন।


বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, আপনারা দেশের বাস্তবতা ও জনগণের আর্থ-সামাজিক অবস্থা বিবেচনা করে ভর্তি ও টিউশন ফিসহ সব ধরণের ব্যয় একটি নির্ধারিত সীমায় রাখতে উদার দৃষ্টিভঙ্গি গ্রহণ করবেন।


সমাবর্তনে বিভিন্ন বিভাগের ১৪৬১ জন শিক্ষার্থীকে সনদ দেয়া হয়। এর মধ্যে ৬ জন শিক্ষার্থী চ্যান্সেলর ও ১০ জন ভাইস-চ্যান্সেলর স্বর্ণপদক লাভ করেন।


অনুষ্ঠানে ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান, সমাবর্তন বক্তা অর্থনীতিবিদ ড. কাজী খলীকুজ্জমান, বোর্ড অব ট্রাস্টিজ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল-মামুন, উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. গোলাম সামদানী ফকির, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ফৈয়াজ খান বক্তব্য রাখেন।


নাহিদ বলেন, কিছু বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় এখনো তাদের নূন্যতম শর্ত পূরণ করতে পারেনি। এভাবে তারা বেশিদিন চলতে পারবে না। যারা মুনাফার লক্ষ্য নিয়ে চলতে চান, যারা নিজস্ব ক্যাম্পাসে এখনো যাননি এবং একাধিক ক্যাম্পাসে পাঠদান পরিচালনা করছেন তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ ছাড়া তারা আর কোনো পথ খোলা রাখেননি। এ সময় স্থায়ী ক্যাম্পাস নির্মাণের কাজ অগ্রগতিতে গ্রিন ইউনিভার্সিটির প্রশংসা করেন মন্ত্রী।


স্নাতকদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, সমাবর্তনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে শিক্ষাজীবন শেষ হলেও কর্মজীবন এখানেই শুরু হলো। এখন থেকেই অর্জিত শিক্ষা ও জ্ঞান বাস্তব কর্মজীবনে প্রয়োগ করতে হবে। তিনি গ্রাজুয়েট উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করেন।


মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিতকল্পে সারাদেশের পাবলিক ও প্রাইভেট পর্যায়ের যে ৩টি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক প্রশিক্ষণ দেয়া হয়, গ্রিন ইউনিভার্সিটি তার একটি হওয়ায় ভূয়সী প্রশংসা করেন তিনি।



ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান বলেন, ২১ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় শুধু পাঠ্যপুস্তকের মধ্যে আবিষ্ট থাকলে চলবে না। সমাজ, রাষ্ট্র এমনকি বিশ্ব রাজনীতি নিয়েও ভাবতে হবে। কারণ সুশিক্ষার সঙ্গে দক্ষ ও যোগ্য জনবলই জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সফলতা বয়ে আনতে পারে।


ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ বলেন, সমাবর্তনের মাধ্যমে তোমরা গ্রাজুয়েশন শেষ করেছো মাত্র, ছাত্রজীবন বা শিক্ষাজীবন নয়; বরং এর মাধ্যমে শিক্ষাজীবনের নতুন আরেকটি অধ্যায়ে পা রাখতে যাচ্ছ। যেখানে বইয়ের পাশাপাশি কর্মজীবন-কর্মস্থল ও প্রকৃতি থেকে শিক্ষা নেবে।


বোর্ড অব ট্রাস্টিজ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল-মামুন বলেন, মানসম্মত শিক্ষার সঙ্গে শিক্ষার্থীদের ক্যারিয়ার নিয়ে সচেতন গ্রিন ইউনিভার্সিটি। এজন্য ইউএস-বাংলা গ্রুপের সঙ্গে সইকৃত এক চুক্তি অনুযায়ী গ্রুপটিতে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে চাকরি পাচ্ছেন গ্রিনের শিক্ষার্থীরা।


তিনি বলেন, নির্মিতব্য স্থায়ী ক্যাম্পাসের কাজ প্রায় ৫০ শতাংশ শেষ হয়েছে। শিগগিরই তা পূর্ণতা পাবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ইউজিসির নির্দেশনার সঙ্গে অভ্যন্তরীণ পরিকল্পনার সমন্বয় করে গ্রিন বিশ্ববিদ্যালয়ের উত্তরোত্তর সাফল্য বয়ে আনছে বলেও জানান তিনি।


উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. গোলাম সামদানী ফকির বলেন, বৈষয়িক দক্ষতা, নৈতিক মূল্যবোধ ও সমাজের প্রতি শিক্ষার্থীদের দায়বদ্ধ করে গড়ে তোলে গ্রিন ইউনিভার্সিটি।


তিনি আশা করেন, এই বিশ্ববিদ্যালয়ের উচ্চতর ডিগ্রি গ্রাজুয়েটদের দৃষ্টি, চিন্তা ও মননকে এমনভাবে বদলে দেবে, যাতে প্রত্যেক শিক্ষার্থীই আপন স্বজাতির স্বরূপ হয়ে উঠতে পারে। শিক্ষার্থীদেরকে দেহ-মন-আত্মিক ও বৈষয়িক বিকাশের সমন্বয় রেখে জীবনকে সফল ও সার্থক করে গড়ে তোলার আহ্বান জানান তিনি।


বিবার্তা/বিজ্ঞপ্তি/শান্ত

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com