আ.লীগের দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়াকে সংবর্ধনা
প্রকাশ : ২৯ জানুয়ারি ২০২০, ২২:২৯
আ.লীগের দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়াকে সংবর্ধনা
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়াকে সংবর্ধনা দিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন।


বুধবার (২৯ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের ফ্লোরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তাকে সংবর্ধনা দেয়া হয়। ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া এই অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য।



সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। সাংবাদিকতা বিভাগের অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি স্বপন কুমার দাসের সভাপতিত্বে এতে আরো উপস্থিত ছিলেন অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সাবরিনা সুলতানা চৌধুরী, অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি আলমগীর হোসেন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মফিজুর রহমান, অ্যাসোসিয়েশনের সহ সভাপতি নার্গিস বেগম মিনি, অ্যাসোসিয়েনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সারা বাংলা ডটনেটের সম্পাদক মাহমুদ মেনন, কার্যকরি পরিষদের সদস্য কবির আহমেদ, শাহীন চৌধুরী, ঢাবি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব রঞ্জন কর্মকার।


অনুষ্ঠানে অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সাবরিনা সুলতানা চৌধুরী বলেন, আমাদের বন্ধন অটুট রাখতে এই অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন।আজকে আমাদেরই একজন বিপ্লব বড়ুয়া আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। এতো কম বয়সে এতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পাওয়া আমাদের পরিবারের জন্য বিরাট অর্জন। আমরা তাকে অভিনন্দন জানাই।



বিপ্লব বড়ুয়াকে নিয়ে তিনি বলেন, বিপ্লব বড়ুয়া একেবারে মাটির মানুষ, সৎ মানুষ। তার সততা দিয়ে তিনি আরো অনেকদূর এগিয়ে যাবেন সেটি প্রত্যাশা করি।


তিনি আরো বলেন, বিপ্লব বড়ুয়া তার উৎস সাংবাদিকতা বিভাগকে কখনো ভুলেননি। আশা করি, তিনি কখনো ভুলবেনও না।


সংবর্ধিত হওয়া ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া তার বক্তব্যে বলেন, নীরবে কাজ করে যাওয়ার শিক্ষা, নীতিবোধের শিক্ষা আমি আরেফিন স্যারের কাছ থেকে শিখেছি। ছাত্রদের অন্তঃপ্রাণ হলেন আরেফিন স্যার। আমার ব্যক্তিগত যেকোনো সিদ্ধান্ত নিতে আমি সবসময় স্যারের পরামর্শ নিয়েছি।


তিনি বলেন, বিএনপি সরকার থাকাকালে আমার চাকরি চলে যায়। তখন আমি স্যারের পরামর্শে লণ্ডনে চলে যাই। সেখানে নিজেকে সমৃদ্ধ করি।



তিনি আরো বলেন, যে বায়োডাটা আমি প্রধানমন্ত্রীর দফতরে জমা দিয়েছি, সেখানে দুইজনের রেফারেন্স রয়েছে। এরমধ্যে প্রথম জন হলেন আরেফিন স্যার।


সংবর্ধনার আয়োজনকে নিয়ে আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক বলেন, আমার প্রতি আপনারা যে ভালোবাসার সম্মান দেখিয়েছেন, তার জন্য আমি কৃতজ্ঞ। বড় পদ মানে বড় দায়িত্ব। আমি যাতে আমার উপর অর্পিত দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করতে পারি, সেজন্য সবাই দোয়া করবেন।


প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, একই পরিবারের কোনো সদস্য যখন ভালো জায়গায় যায়, তখন তার পরিবারের সদস্যরা আনন্দিত হবেন এটাই স্বাভাবিক। বিপ্লব বড়ুয়া আমাদের সাংবাদিকতা পরিবারের। তাই তাকে নিয়ে আজকে আমরা গর্বিত, আনন্দিত।


তিনি বলেন, বিপ্লব বড়ুয়াকে অভিনন্দন জানাই, শুভেচ্ছা জানাই। একইসাথে তার এ প্রাপ্তির জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।



তিনি আরো বলেন, আমার সম্পর্কে বিপ্লব বড়ুয়া অনেক কথা বলেছেন। আমি আসলে বেশি কিছু করিনি। একজন শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেছি মাত্র।


ঢাবির সাবেক এ উপাচার্য বলেন, যেকোনো দেশের প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারীরা প্রধানমন্ত্রীর চোখ কান হিসেবে কাজ করে। এ দায়িত্ব প্রধানমন্ত্রী তাকেই দিবেন, যার প্রতি তার শতভাগ আস্থা আছে। বিপ্লব বড়ুয়া প্রধানমন্ত্রীর সেই আস্থাও অর্জন করেছেন। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে বিপ্লব বড়ুয়া এভাবে সততার সাথে, নিষ্ঠার সাথে কাজ করে যাবেন বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।


অনুষ্ঠানে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।


বিবার্তা/রাসেল/জাই

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com