দাবি আদায়ে অনড় শিক্ষার্থীরা, অনশনে আরো একজন অসুস্থ
প্রকাশ : ১৮ জানুয়ারি ২০২০, ১৩:০৩
দাবি আদায়ে অনড় শিক্ষার্থীরা, অনশনে আরো একজন অসুস্থ
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রিন্ট অ-অ+

সরস্বতী পূজার দিন ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ভোটের তারিখ হওয়ায় নির্বাচন পেছানোর দাবিতে আমরণ অনশনে থাকা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষার্থীদের অনশন তৃতীয় দিনেও চলমান রয়েছে। তবে এখনো দাবি আদায়ে নির্বাচন কমিশন থেকে কোনো আশ্বাস পাননি তারা। এদিকে শিক্ষার্থীরা তাদের দাবি আদায়ে অনড় অবস্থায় রয়েছেন। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরণ অনশন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তারা।


শনিবার (১৮ জানুয়ারি) সকালে সরেজমিনে টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশের অনশনস্থল গিয়ে দেখা যায়, শিক্ষার্থীরা কনকনে শীত উপেক্ষা করে দাবি আদায়ে তাদের অনশন অব্যাহত রেখেছেন। টানা ৩ দিন না খাওয়ায় এদিন বেলা ১১টার দিকে অভি দাস প্রিতম নামের এক শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।


অভি দাস প্রিতমকে নিয়ে এ অনশনে এখন পর্যন্ত মোট ১১ জন শিক্ষার্থী অসুস্থ হয়েছেন। এরমধ্যে ৩ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছিল। এদের ২ জন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে অনশনস্থলে ফিরে এসেছেন। বাকী ১জন এখনো হাসপাতালে রয়েছেন। এছাড়া অনশনস্থলেও অনেকে অসুস্থ হওয়ায় স্যালাইন দেয়া অবস্থায় রয়েছেন।


অসুস্থরা হলেন, জগন্নাথ হল ছাত্র সংসদের ভিপি উৎপল বিশ্বাস, জিএস কাজল দাস, থিয়েটার অ্যান্ড পারপরম্যান্স স্টাডিজের শিক্ষার্থী অপূর্ব চক্রবর্তী, মৃত্তিকা, পানি এবং পরিবেশ বিভাগের শিক্ষার্থী অর্ক সাহা,জয়ন্ত বণিক, ভবতোষ চন্দ্র রায়, ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজম্যান্টের শিক্ষার্থী সবুজ কুমার, পালি অ্যান্ড বুদ্ধিস্টের শিক্ষার্থী সুকেশ দেবনাথ, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষার্থী রবিউল আউয়াল রবি, অভি দাস প্রিতম প্রমুখ।


অনশনস্থলে নেতৃত্বে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হল ছাত্র সংসদের ভিপি উৎপল বিশ্বাস বিবার্তাকে বলেন, আমি নিজেও অসুস্থ হয়ে পড়েছিলাম। স্যালাইন নেয়ার পর এখন কিছুটা সুস্থতাবোধ করছি। আজকেও আমাদের একজন অসুস্থ হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।



তিনি বলেন, আমাদের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরণ অনশন চলবে। প্রয়োজনে লাশ হয়ে যাবো। তারপরও দাবি আদায়ে পিছু হটবো না।


ঢাবির এ শিক্ষার্থী বলেন, আমাদের অনশনে ভিসি স্যার, ডাকসু নেতৃবৃন্দসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক শিক্ষক সংহতি জানিয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও দলে দলে এসে আমাদের সাথে সংহতি জানাচ্ছেন। ছাত্রী বোনেরাও আমাদের অনশনে রয়েছে। তবে দুঃখের বিষয়, নির্বাচন কমিশন থেকে এখনো পর্যন্ত আমাদের কোনো খবর নেয়া হয়নি।


এদিকে এ অনশনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. নিজামুল হক ভূঁইয়া, বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম, জগন্নাথ হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক মিহির লাল সাহা, সংস্কৃত বিভাগের চেয়ারপারসন অধ্যাপক নৈমিতা মন্ডল, ঢাবির অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব রঞ্জন কর্মকার, সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক আ ক ম জামাল উদ্দিন, জগন্নাথ হলের আবাসিক শিক্ষক কালিদাস দত্ত, বিবার্তা২৪ডট নেটের সম্পাদক বাণী ইয়াসমিন হাসি, গেীরব ৭১ সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এফ এম শাহীনসহ অনেকে সংহতি জানিয়েছেন।


অনশনে সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোও সংহতি জানাচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন গৌরব ৭১, টিএসসির জয়ধ্বনি সংগঠনসহ কয়েকটি সংগঠন অনশনে সংহতি জানিয়েছেন।


এরআগে বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) দুপুর ২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এ কর্মসূচি পালন শুরু করে শিক্ষার্থীরা। তার আগে মঙ্গলবার, বুধবারও একই দাবিতে রাজধানীর শাহবাগ মোড় অবরোধ করেছিলো ঢাবি শিক্ষার্থীরা।


বিবার্তা/রাসেল/জহির

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

ময়মনসিংহ রোড, শাহবাগ, ঢাকা-১০০০

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanews24@gmail.com ​, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com