মন্ত্রীর উপলব্ধি, পুলিশের আচরণ
প্রকাশ : ১৫ জানুয়ারি ২০১৮, ১৮:১১
মন্ত্রীর উপলব্ধি, পুলিশের আচরণ
প্রিন্ট অ-অ+

বাংলাদেশ পুলিশের একটি অফিসিয়াল স্লোগান আছে - ''পুলিশ জনগণের বন্ধু''। কিন্তু এর পাশাপাশি আরো একট স্লোগান মানুষের মুখে মুখে চালু হয়ে গেছে - ''দেশের রাজা পুলিশ''। শেষের কথাটি পুলিশের প্রতি সাধারণ মানুষের আস্থা, শ্রদ্ধা ও ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ হলে কারো কিছু বলার থাকে না। কিন্তু যদি এর পেছনে থেকে থাকে জনতার শ্লেষ, তাহলে ভাবার ও বলার কিছু তো আছেই।


ক'দিন আগে সাড়ম্বরে পালিত হলো পুলিশ সপ্তাহ। এর উদ্বোধন করলেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এর রেশ কাটতে-না-কাটতেই সোমবারের পত্রিকায় ছাপা হলো প্রতারণার ঘটনায় জিডি করতে গিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর পুলিশের হেনস্তার শিকার হওয়ার খবর।


জানা যায়, রবিবার বিকালে মার্কেটিং ডিপার্টমেন্টের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী তানভির হোসেন শান্তর মায়ের ফোন নম্বরে ডিবি পরিচয়ে কল করে শান্তকে আটকে রাখার কথা বলে তার মায়ের কাছ রকেটের (ডিবিবিএল) মাধ্যমে ৩০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় প্রতারক চক্র।


তানভির হোসেন শান্ত বলেন, ‘'এ বিষয়ে জিডি করতে গেলে শাহবাগ থানার কর্তব্যরত কর্মকর্তা আমাদের বলেন, আপনারা জিডি কইরেন না, সাইবার ক্রাইম ইউনিটে যান। তখন জিডি নেয়ার অনুরোধ করলে ওসি তদন্তের (জাফর) কাছে যেতে বলেন। ওই কর্মকর্তার কথা অনুযায়ী জাফরের কাছে গেলে তিনি আমাদের হেনস্তা করেন। এরপর সেখান থেকে বের হয়ে বেইলি রোডের পুলিশ হেডকোয়ার্টারের সাইবার ক্রাইম ইউনিটের ১১০নং কক্ষে গেলে তারা জিডি নিতে বলে। পরে আবার শাহবাগ থানায় এলে তারা জিডি না নিয়ে আমাদের পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সে যেতে বলে। পাশাপাশি বলা হয় জিডি নেয়া হবে, তবে লেখা পরিবর্তন করতে হবে। এ ভাষায় জিডি নেয়া যাবে না। এরপর আমরা থানা থেকে চলে আসি।’'


ঘটনাটি ''সামান্য'' কিন্তু এর তাৎপর্য মোটেও সামান্য নয়। জনগণের সঙ্গে জনগণের ট্যাক্সের টাকায় প্রতিপালিত পুলিশের আচরণ কেমন আচরণ করে, এটা তারই একটা ছোট কিন্তু ক্লাসিক দৃষ্টান্তমাত্র। তবে এ জন্য আমরা পুলিশকে নিয়ে কিছু বলাকেও অপচয় মনে করি।


আমরা বরং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের একটি তাৎপর্যপূর্ণ উক্তির সূত্র ধরে সরকারকে সতর্ক করতে চাই।


নেতা-কর্মীদের আচরণে শুদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আচরণ ভালো না হলে শত উন্নয়ন ম্লান হয়ে যাবে। তাই নেতা-কর্মীদের আচরণ ভালো করতে হবে।


আওয়ামী লীগের প্রয়াত নেতা এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর স্মরণে রবিবার বিকেলে চট্টগ্রাম নগরের লালদীঘি ময়দানে আয়োজিত শোকসভায় ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।


ওবায়দুল কাদের তৃণমূল পর্যায়ের রাজনীতি করে আজকের অবস্থানে এসেছেন। তিনি মাটি ও মানুষের ভাষা বোঝেন। জানেন তাদের চাওয়া-পাওয়া কী। তাই এমন একটি তাৎপর্যপূর্ণ উচ্চারণ তিনি করতে পেরেছেন।


কথাটি তিনি যদিও বলেছেন কেবল দলের নেতা-কর্মীদের, কিন্তু আমরা মনে করি, এটা সরকারের সব শাখার জন্যই প্রযোজ্য; পুলিশের জন্য আরো বেশি প্রযোজ্য এ জন্য যে, মানুষ নেহাৎ ঠেকায় না-পড়লে পুলিশের ধারেকাছে যায় না। বিপদে পড়ে শরণ নিয়ে যদি হয়রানির শিকার হতে হয়, তখন তাদের সব ক্ষোভ, যৌক্তিক বা অযৌক্তিক যা-ই হোক, গিয়ে পড়ে সরকারের ওপর।


আমাদের প্রশ্ন হলো, সরকার এ বাহিনীটিকে পালতে প্রতি বছর শত শত কোটি টাকা ব্যয় করে। এরপর ওদের (সবার নয়) অপকর্মের দায়ও কি সরকারকেই বহন করতে হবে? কেন হবে?

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com