ওদের ছাড়াও আওয়ামী লীগ চলবে
প্রকাশ : ১১ নভেম্বর ২০১৭, ২০:৩৯
ওদের ছাড়াও আওয়ামী লীগ চলবে
প্রিন্ট অ-অ+

আমাদের দেশে যখন যে দল ক্ষমতায় যায়, তখন ওই দলের ব্যানারে এক শ্রেণীর নেতাকর্মী নানাবিধ অপকর্মে মেতে ওঠে। এটা সব দলের শাসনামলেই কম-বেশি হয়েছে। কিন্তু ক্ষমতাসীন দলটি যদি হয় আওয়ামী লীগ, তখন আমরা একটু বেশিই আহত হই। কেননা এ দলটি মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবাহী দল। এ দল বঙ্গবন্ধুর দল। এ দল ও তার নেতাকর্মীদের মানুষের চাওয়া-পাওয়াই অন্যরকম।


কিন্তু আমরা না চাইলেও মাঝেমধ্যেই এমন কিছু ঘটনা দলের ‘’নেতাকর্মী’’ নামধারীরা ঘটিয়ে ফেলে যা কিছুতেই মেনে নেয়া যায় না। শনিবারের পত্রিকায় প্রকাশিত এরকম দু’টি খবরের একটি এ রকম : শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জে ছাত্রলীগের এক নেতা ছয় নারীকে ফাঁদে ফেলে তাদের সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করেছে এবং সেসব দৃশ্য গোপনে ভিডিও করে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দিয়েছে। লজ্জা ও অপমানে ওই নারীদের একজন এখন এলাকাছাড়া। দু’জন কলেজে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছে। এক গৃহবধূকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিয়েছে শ্বশুরবাড়ির লোকজন।


এ ঘটনার যে হোতা, তার নাম আরিফ হোসেন হাওলাদার। সে ওই উপজেলার নারায়নপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক।


দ্বিতীয় ঘটনাটি ঘটেছে চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে। এখানে এমাজউদ্দিন নামে এক ‘’নেতা’’কে বৃহস্পতিবার রাতে ৫৪ ধারায় আটক করে করে পুলিশ। পরদিন শুক্রবার ফটিকছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগ ও যুবলীগের একাংশের নেতাকর্মীরা রাস্তায় নেমে আসে এবং রাস্তা অবরোধ করে। প্রায় ছয় ঘণ্টা স্থায়ী বেআইনী অবরোধে হাজার হাজার যাত্রীকে অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হয়। মজার ব্যাপার হলো, এই এমাজ কিন্তু ছাত্রলীগ বা যুবলীগের কেউ নয়, সে ‘’বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব পরিষদ’’ নামে একটি অখ্যাত সংগঠনের ফটিকছড়ি উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক। স্বয়ং যুবলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মো. হারুনুর রশীদ মিডিয়াকে বলেছেন, এটি একটি ভুয়া সংগঠন।



উপরোক্ত দু’টি খবরের ভিত্তিতে আমাদের বিনীত প্রশ্ন – প্রথম ঘটনার হোতা আরিফ হাওলাদারকে ছাত্রলীগ থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। ত্বরিৎ এ পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য ছাত্রলীগ সাধুবাদ পেতেই পারে। কিন্তু ছয়টি নারীর জীবনকে কালিমালিপ্ত করার শাস্তি যেন এখানেই শেষ হয়ে না যায়। ছাত্রলীগ যেমন দ্রুত পদক্ষেপ নিয়েছে, পুলিশ ও প্রশাসনও যেন তেমনই সক্রিয় হয়। এবং সেটা হলেই আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা হবে।


দ্বিতীয় খবরটির বিষয়ে আমাদের জিজ্ঞাস্য – যে লোক ছাত্রলীগ-যুবলীগের কেউ না, তার জন্য ছাত্রলীগ-যুবলীগের ব্যানারে রাস্তায় নামলো, ওরা কারা, কী তাদের স্বার্থ? আরও প্রশ্ন, ছয় ঘণ্টাব্যাপী রাস্তা অবরূদ্ধ হয়ে থাকলো, পুলিশ ও প্রশাসন তখন কোথায় ছিল? তাদের এই নীরবতার রহস্য কী?


এসব প্রশ্নের জবাব কী, তা সংশ্লিষ্টরাই বিবেচনা করুন। আমরা শুধু বিনীতভাবে বলতে চাই, যারা নারীর সম্ভ্রম লুটে নেয়, যারা ভুয়া ‘’নেতা’’ ও তার সাঙ্গপাঙ্গ, যারা বেআইনী কাজ করে কিংবা তাদের মদদ দেয়, আওয়ামী লীগের মতো ঐতিহ্যবাহী দলে তাদের কোনো প্রয়োজন নেই। তাদের ছাড়াই আওয়ামী লীগ অতীতে চলেছে, ভবিষ্যতেও চলতে পারবে। এসব নষ্ট উপাদান যতো তাড়াতাড়ি দল থেকে ঝেটিয়ে বিদায় করা যায় ততোই মঙ্গল; দলের জন্যও, দেশের জন্যও।

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com