নয়াপল্টনের ঘটনায় গ্রেফতার ৬
প্রকাশ : ২০ নভেম্বর ২০১৮, ১৬:২৩
নয়াপল্টনের ঘটনায় গ্রেফতার ৬
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

রাজধানীর পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের ওপর হামলা ও গাড়িতে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।


মঙ্গলবার বিকালে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলন করে এ তথ্য জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম।


তিনি জানান, সোমবার রাজধানীর সূত্রাপুরসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।


গ্রেফতারকৃতরা হলেন- রাজধানীর ১১নং ওয়ার্ড ছাত্রদল সভাপতি প্রার্থী ও মির্জা আব্বাসের অনুসারী মো. এইচ কে হোসেন আলী, শাহজাহানপুর থানা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সোহাগ ভূইয়া, ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মো. আব্বাস আলী, ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক মো. আশরাফুল ইসলাম রবিন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের যুগ্ম-সম্পাদক জাকির হোসেন উজ্জ্বল, ও তিতুমীর কলেজ ছাত্রদলের সহ-সভাপতি মাহাবুবুল আলম।


মনিরুল ইসলাম জানান, গত ১৪ নভেম্বর বিএনপি অফিসের সামনে পুলিশের ওপর আক্রমণ, গাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও ভাংচুরের ঘটনায় তাদের চিহ্নিত করা হয়েছে। এর আগে ভিডিও ফুটেজ দেখে চিহ্নিত সাত জনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল বলে জানান তিনি।


সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে সিটিটিসি প্রধান বলেন, ঘটনাস্থলে সহস্রাধিক মানুষ ছিল; কিন্তু যারা ঘটনার সাথে জড়িত, নির্দেশদাতা এবং পরিকল্পনাকারী কেবলমাত্র তাদেরকেই মামলার আসামি করা হয়েছে। এই ঘটনার সাথে যারা যারা জড়িত ভিডিও ও স্থির চিত্র দেখে তাদেরকে শনাক্ত করা হচ্ছে। রাজনৈতিক পরিচয় মামলার মুখ্য বিষয় নয়। যারা ফৌজদারি অপরাধ করেছে তাদেরকে গ্রেফতার করা হচ্ছে। ঘটনার দিন পুলিশ অসীম ধৈর্য্যের পরিচয় দিয়েছে।


তিনি বলেন, হামলার মূল উদ্দেশ্য ছিল পুলিশকে উসকানি দেয়া। তারা ভেবেছিল এ ঘটনায় পুলিশ অ্যাকশনে যাবে এবং নির্বিচারে লাঠিচার্জ করবে। আর সেসব ভিডিও ফুটেজ দেখিয়ে দলটি রাজনৈতিক ফায়দা লুটবে।



তিনি বলেন, এইচ কে হোসেন আলী হেলমেট পড়ে গাড়ি ভাংচুর ও গাড়িতে উঠে লাফিয়েছিলেন। সোহাগ লাঠি হাতে গাড়ি ভাংচুর করে ও শার্ট খুলে ঔদ্ধত্য প্রকাশ করেছিলেন। আব্বাস খালি গায়ে উন্মত্বতা প্রকাশ করে গাড়ি ভাংচুর করেন। আশরাফুল পুলিশের পিকআপে প্রথম আঘাত করেন। জাকির ও মাহবুবুল উপস্থিত থেকে হামলা, ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের নির্দেশনা দেন।


উল্লেখ্য, গত ১৪ নভেম্বর নয়া পল্টনে বিএনপি’র কার্যালয়ের সামনে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের ওপর অতর্কিত হামলা, পুলিশের গাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পরবর্তী সময়ে পল্টন থানায় ৩টি মামলা করা হয়েছে। পরদিন মামলা ৩টির তদন্তভার গোয়েন্দা পূর্ব বিভাগে হস্তান্তর করা হয়। এরপর থেকে গোয়েন্দা পুলিশ ভিডিও ফুটেজ যাচাই বাছাইসহ প্রকাশ্য ও গোপনে তদন্ত করে আসামিদের শনাক্ত করে। এরপর শুরু হয় গ্রেফতার অভিযান।


বিবার্তা/খলিল/কাফী

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com