চলন্ত প্রাইভেট কারে তরুণীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে আটক ১
প্রকাশ : ১০ জুন ২০১৮, ১৪:০৮
চলন্ত প্রাইভেট কারে তরুণীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে আটক ১
বিবার্তা প্রতিবেদক
প্রিন্ট অ-অ+

রাজধানীর কলেজগেট এলাকায় তরুণীকে জোর করে প্রাইভেট কারে তুলে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে কারটির মালিক রনি হককে আটক করেছে পুলিশ। শেরে বাংলা নগর থানার ওসি জিজি বিশ্বাস এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, আটক রনিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।


এ প্রসঙ্গে ওসি বলেন, এখনো নির্যাতনের শিকার মেয়েটির কোনো সন্ধান পায়নি পুলিশ। তবে অভিযুক্ত রনিকে আটক ও তার প্রাইভেট কারটি জব্দ করা হয়েছে।


এর আগে শনিবার রাতে রনি ও তার ড্রাইভার একটি মেয়েকে জোর করে তাদের প্রাইভেট কারে তুলে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। এ সময় রাস্তায় থাকা লোকজন বিষয়টি বুঝতে পেরে কলেজ গেট এলাকায় প্রাইভেট কারটি আটক করে। পরে সেখান থেকে মেয়েটিকে উদ্ধার করে এবং রনি ও তার ড্রাইভারকে গণপিটুনি দেয় পথচারীরা। পরে রনির প্রাইভেট কারের ড্রাইভার পালিয়ে গেলেও রনিকে আটক করে পুলিশ।


শনিবার দিবাগত রাতে সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজের সামনে এই ঘটনা ঘটে। ধারণা করা হচ্ছে, একটু গভীর রাতেই ঘটনাটি ঘটেছে। কারণ সে সময় আশপাশের ওষুধের দোকান ছাড়া সব দোকানপাট বন্ধ ছিল।


মেয়েটিকে উদ্ধারকর্তা তরুণদের একজন ভিডিও করে সেটি ফেসবুকে ছড়িয়েছেন। আর ঘটনার বর্ণনাও তিনি দিয়েছেন। তবে পুলিশ জানিয়েছে, তাদের কাছে আনুষ্ঠানিক কোনো অভিযোগ আসেনি। তবে ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পর ঘটনা অনুসন্ধানে মাঠে নেমেছে তারা।


ঘটনার সময় উপস্থিত রাফি আহমেদ তার ফেসবুক পেজে সেহরির সময় দুটি ভিডিও পোস্ট করেন। এরপরই সেটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়।


রাফি জানান, মোহাম্মদপুর, কলেজগেট সিগনালে ঠিক আমার সামনের প্রাইভেটকারটিতে কিছু একটা হচ্ছে বলে ধারণা করছিলেন তিনি। পরে লক্ষ্য করেন, গাড়ির পেছনের সিটে থাকা ছেলেটি একটি মেয়ের সাথে ধস্তাধস্তি করছে।


বিষয়টি সন্দেহ হলে অনেকে এগিয়ে যায়। এ সময় চালক দ্রুত গাড়িটি নিয়ে সটকে পড়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু রাস্তায় যানজট থাকায় গাড়িটি বেশি দূর যেতে পারেনি।


পরে গাড়িটি ধরে ফেলে স্থানীয়রা। এ সময় তারা প্রাইভেটকারটির কাছে গিয়ে দরজা খুলতে বললে তারা গাড়ির দরজা খুলতে চায় না। পরে চাপের মুখে দরজা খোলা হয়।


এ সময় পেছনের সিটে থাকা ওই যুবক নগ্ন ছিলেন। পরে প্যান্ট পরিয়ে তাকে বাইরে বের করে আনা হয় এবং ওই তরুণীকে অন্য নারী বাইরে বের করে আনতে সাহায্য করেন।


রাফি লিখেন, ওই যুবক নেশাগ্রস্ত ছিলেন। পরে জনতা তাকে ধরে গণপিটুনি দিয়ে নগ্ন করে রাস্তায় ছেড়ে দেয়া হয়। এ সময় গাড়ির চালক ও তিনি সে অবস্থতেই পালিয়ে যান।


এ ব্যাপারে রবিবার বিকেলে ঢাকা মহানগর পুলিশের শেরে বাংলা নগর থানা পুলিশ আনুষ্ঠানিকভাবে ব্রিফ করে। এ সময় থানার ওসি গোপাল গণেশ বিশ্বাস জানান, শনিবার দিবাগত রাতে সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজের সামনে এই ঘটনা ঘটে।


ওসি বলেন, দুই যুবকে মারধর করে। এ সময় একজন পালিয়ে গেলেও রনি নামের একজনকে ডিউটিরত পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হয়।


তিনি জানান, সংসদ ভবনের পাশ থেকে দু’টি মেয়েকে প্রাইভেট কারে তুলে নিয়ে আসা হয়। এক পর্যায়ে আসাদ গেইট এলাকায় একটি মেয়েকে গাড়ি থেকে বের করে দেয়া হয়। এ সময় ওই মেয়েটি চিৎকার-চেচামেচি শুরু করে। সে সময় আশপাশের লোকজন এসে ওই গাড়ির গতিরোধ করে এবং চালক ও গাড়িতে থাকা যুবককে গণপিঠুনি দেয়। পরে সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজের সামনে দায়িত্বরত পুলিশের হাতে তাদের তুলে দেয়া হয়।


ওসি আরো বলেন, রনিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তবে মেয়ে দুটিকে চিহিৃত করার চেষ্টা চলছে। তাদের পরিচয় পাওয়া গেলে আসল ঘটনা জানা যাবে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার প্রস্তুতি চলছে।


তিনি আরো জানান, রনি আইন-বিভাগ থেকে শিক্ষা জীবন শেষে করেছে। বর্তমানে তিনি ব্যবসা করছেন। তবে ফেসবুকে ভিডিও ভাইরালের বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।


বিবার্তা/খলিল/জহির

সর্বশেষ খবর
সর্বাধিক পঠিত

সম্পাদক : বাণী ইয়াসমিন হাসি

৪৬, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ

কারওয়ান বাজার (৬ষ্ঠ তলা), ঢাকা-১২১৫

ফোন : ০২-৮১৪৪৯৬০, মোবা. ০১৯৭২১৫১১১৫

Email: bbartanational@gmail.com, info@bbarta24.net

© 2016 all rights reserved to www.bbarta24.net Developed By: Orangebd.com